Ticker

5/recent/ticker-posts

পিটিসি (PTC) কি? পিটিসি (PTC) কিভাবে কাজ করে A to Z

 সবাই কেমন আছেন। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজকের পোষ্টটি একটু বড় হতে পারে, যদি আপনারা সম্পূর্ন পোষ্টটি পড়েন তাহলে যারা পিটিসি (PTC) সাইটে কাজ করেন তারা হয়তো আর কোন দিন কাজ করবেন না। তো চলুন বিস্তারিত জানা যাক।
 
earn money online, ptc site, how to earn money ptc site, ptc কি, how to work ptc site, how to make ptc site
সবার আগে জেনে নিই পিটিসি (PTC) কি?
পিটিসি (PTC) হলো: পেইড টু ক্লিক (Paid To Click). সহজ বাংলা ভাষায় বলতে গেলে যেখানে আপনারা ক্লিক করার মাধ্যমে টাকা পাবেন। এই পিটিসি (PTC) সাইট গুলোর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। কারন এই সব সাইট থেকে আমার আপনার ইনকাম না হলেই যারা এই পিটিসি (PTC) তৈরি করেছে তাদের অনেক লাভ হচ্ছে।

এবার আপনাদের জানাবো এই সব পিটিসি (PTC) সাইট তৈরি করতে কি কি লাগে বা কত টাকা খরচ হয় ?

প্রথমে আপনার একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং লাগবে। এখন ডোমেইন এবং হোস্টিং বিভিন্ন দামের হয়ে থাকে, ধরে নিলাম আপনি ১৫০০ টাকা দিয়ে একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনলেন। এরপর এই পিটিসি (PTC) সাইট এর জন্য একটি টেমপ্লেট কিনতে হবে। পিটিসি (PTC) এর টেমপ্লেট দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন। হয়তো আপনি যে পিটিসি সাইটে কাজ করেন তার টেমপ্লেট ও পেয়ে যেতে পারেন। আশা করি আপনারা ওয়েব সাইট টি ভিজিট করে দেখেছেন টেমপ্লেট গুলো অনেক দাম। এখন বলতে পারেন তাহলে কি সবাই এতো টাকা দিয়ে কি টেমপ্লেট কিনে নেয়। আমি বলবো না, সবাই এই টেমপ্লেট কিনে না। এমন অনেক ব্যক্তি আছে যারা এই ডলার দিয়ে টেমপ্লেট কিনে তা অল্প দামে অন্যের কাছে বিক্রি করে। এখন সেটা যেকোন দামে হতে পারে। ধরে নিলাম একটি টেমপ্লেট কিনতে ১০০০ টাকা লাগে। তাহলে মোট টাকা হলো (১৫০০+১০০০=২৫০০) টাকা। ২৫০০ টাকা হলে আপনি একটি পিটিসি সাইট বানাতে পারবেন। এরপর সেই সাইট কেমন ডিজাইন করবেন, কত ডলারের এ্যাড দিবেন বা কি কি নিয়ম থাকবে তা আপনি নিচে সেট করতে পারবেন। আশা করি আপনারা কিছুটা হলেও বুঝতে পেরেছেন।

এই সব পিটিসি (PTC) সাইট গুলো কিভাবে মানুষের কাছে আসে ?
এই সব পিটিসি (PTC) সাইট গুলো আমরাই মানুষের মাঝে ছরিয়ে দেই। মনে করুন আমি একটি নতুন পিটিসি সাইট বানিয়েছে সেখানে অফার দিলাম যারা ১ মাসের মধ্যে এই সাইটে জয়েন হবে তার ২ ডলার বোনাস পাবে এবং যদি কেও রেফার করতে পারে তাহলে প্রতিটি রেফারের জন্য ১ ডলার পাবে। এই মোট ৩ ডলারের লোভ করেই আমরা এই সব সাইটে কাজ করি এবং অন্যকে জয়েন করাই। এখন বোনাস তো পেলাম কিন্তু বোনাসের টাকা কবে হাতে পাবো তার হিসাব করি না। ১-২ ডলার খরচ করে অন্য পিটিসি সাইটে আমাদের পিটিসি সাইট এর বিজ্ঞাপন দিলেই মানুষের অভাব হয় না।

এখন পিটিসি সাইটে কাজ করে মাসে কত টাকা ইনকাম করা যায় ?
মনে করেন আপনি একটি পিটিসি সাইটে কাজ করেন। প্রতিটি সাইটে কিছু Fixed Ads দেওয়া থাকে, সেগুলো আপনাকে প্রতিদিন দেখতে হবে। একটি পিটিসি সাইটে Fixed Ads ৪টি থেকে ৮টি হয়ে থাকে। এখন আপনি একটু হিসাব করেন। প্রতিটি Ads এর মূল্য এর সাথে যে কয় টা Ads দেখতে হবে তার গুন দিন, যত ডলার হবে তার সাথে ৩০ গুন দিন মানে এ মাস কাজ করে কত টাকা আয় হবে। তাহলেই বুঝতে পারবেন একটি সাইট থেকে আপনার কত টাকা আয় হবে প্রতি মাসে।
এখন বলতে পারেব ইনভেষ্ট করে বেশি আয় করা যায়। আমি বলবো না, এটা ভুল। মনে করেন আপনি ৫ ডলার দিয়ে একটি প্যাকেজ কিনলেন। এখন যার সাইট সে তো বলেই দিয়েছে কত ডলার ইনভেষ্ট করলে প্রতিদিন কত টাকার Ads পাবেন। এখন প্যাকেজ কেনার পরে আপনার Ads এর দাম ও বেড়ে গেলো। এখন প্রতিটি Ads এর দামের সাথে Fixed Ads যে কয়টা থাকে তার গুন দিন, যত টাকা আসবে সেটা হলো আপনার প্রতিদিনের ইনকাম, এখন আপনি যে ৫ ডলার ইনভেষ্ট করেছের, সেই ৫ ডলার তুলতে কত দিন লাগবে তা বের করুন। তাহলেই আপনি সব কিছু পানির মত বুঝে যাবেন।

এখন পিটিসি সাইটের মালিক দের কিভাবে ইনকাম আসে ?
সাধারনত এই সব সাইটে অনেক ভিজিটর থাকে। প্রতিটি সাইটে এ্যাডভার্টসমেন্ট নামে একটি অপশন থাকে সেখানে দেখতে পাবেন কত ডলারে কত ভিজিটর পাবেন। তখন আমরা সেখানে কিছু ডলার ইনভেষ্ট করে আমাদের সাইটে ভিজিটির আনি বা অন্য সাইটের জন্য রেফার নিয়ে থাকি। যদি কেউ ইনভেষ্ট করে থাকে তাহলে পিটিসি সাইটের মালিকদের ইনকাম হবে, যদি না করে তাহলে তাদের ইনকাম হবে না। আর যখন ইনকাম না হয় তখন তারা সাইটি বন্ধ করে দেয় মানে Scam করে। পরে আবার নতুন নিয়ম করে আবার মার্কেটে আসে।

আশা করি পিটিসি সাইট সম্পর্কে কিছুটা হলেও ধারনা পেয়েছে। এখন আপনাদের ইচ্ছা হলে আপনারা পিটিসি সাইটে কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন। আজকের পোষ্ট এখানেই শেষ করছি। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। ধন্যবাদ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য