Ticker

5/recent/ticker-posts

কিভাবে একটি ব্লগ পোষ্ট এসইও (Blog Post Seo) করতে হয়

এর আগে আমি একটি পোষ্ট করেছিলাম যে, ব্লগ পোষ্ট কিভাবে করতে হয়। যদি কেও সেই পোষ্টটি দেখে না থাকেন তাহলে এই পোষ্ট এর নিচে লিঙ্ক দেওয়া থাকবে। তো আজকে আমি আপনাদের জানাবো সেই ব্লগ পোষ্ট কিভাবে এসইও (SEO) করবেন এবং কোথায় কোথায় করবেন। তো চলুন শুধু করা যাক।
blogger post sco, sco, how to sco blogger, kivabe blog pej sco korte hoy.

  • আমরা যখন আমাদের সাইটে কোন পোষ্ট করি তখন সাথে সাথে একটি লিঙ্ক তৈরি হয়ে যায়। যার নাম পার্মালিঙ্ক। এই লিঙ্কটা তৈরি হয়, আপনি যখন পোষ্ট এর টাইটেল লিখবেন ঠিক তখন টাইটেলের সাথেই মিল রেখে তৈরি হয়ে যায়। তো আমরা সেই পার্মালিঙ্ক এ গিয়ে লিঙ্ক টা কাস্টম করে দিবো মানে ভালো একটা ইংলিশ কিওয়ার্ড যুক্ত করবো। যাতে করে আমাদের লিঙ্ক টা অন্য কারো সাথে না মিলে। মনে রাখবেন আপনার পোষ্টের টাইটেলের সাথে যদি লিঙ্ক এর মিল থাকে তাহলে অনেক টাই রেঙ্ক আসার সম্ভাবনা থাকে।
  • গুগল এ রিসার্চ করে যে কিওয়ার্ড (keyword) টা পাবেন, সেই কিওয়ার্ড (keyword) দিয়ে টাইটেল লেখার চেষ্টা করবেন। যাতে করে মানুষ যখন সার্চ করবেন তখন গুগল এর প্রথম পেজে আসে। আপনি যখন গুগল এর কোন কিছু লিখে সার্চ করেন তখন সবার আগে কিন্তু টাইটেল আসে পরে আসে লিঙ্ক । তাই টাইটেল লেখার আগে চিন্তা করে নিবেন যে মানুষ কি লিখে সার্চ করে।
  • আমরা যে পোষ্ট টা লিখবো তার মধ্যে যদি কোন কিওয়ার্ড থাকে তাহলে সে গুলো বোল্ড করে দিবো। মনে করেন আমার এই পোষ্ট এ কিছু কিওয়ার্ড (keyword) পেলাম, যেমনঃ গুগল রিসার্চ, কিওয়ার্ড ইত্যাদি এমন অনেক কিওয়ার্ড পাবেন সেগুলো বোল্ড করে দিবেন। যদি ইংলিশ হয় তাহলে শুধু বোল্ড করলেই হবে, আর যদি বাংলা হয় তাহলে একটা ফাস্ট ব্রেকেড দিয়ে বল্ড করে দিবেন, যেমন আমার পোষ্টে আমি করেছি সাথে বাংলা লেখা কেও বোল্ড করবেন। এক কথায় বলতে গেলে মানুষ যেই কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করে ঠিক সেই কিওয়ার্ড গুলোই বোল্ড করবেন। গুগল এ দেখবেন, আপনি যখন কোন কিছু লিখে সার্চ করেন, তখন কিছু লেখা আসে চিকন হাতের আর কিছু লেখা আসে একটু মোটা এর কারণ হলো সেই পোষ্টের মালিক সেই লেখা গুলো করে বোল্ড করে দিছিলো। তাই বলে আপনি সম্পূর্ন লেখাকে বোল্ড করবেন না, যে গুলো মেইন কিওয়ার্ড (keyword) বলে আপনার মনে হবে, যে এই কিওয়ার্ড দিয়ে গুগল এ সার্চ করে শুধু মাত্র সেই গুলোই করবেন।
  • আমরা যে পোষ্ট টা করবো সেই পোষ্টে কিন্তু একটি ছবি দিতে হবে। সেই ছবিতে একটি উআরএল লেখায় জায়গা থাকে এবং টাইটেল লেখার জায়গা থাকে। এখন উআরএল এর জায়গায় আপনার সাইটের উআরএল টা দিবেন এবং কিওয়ার্ড (keyword) যুক্ত টাইটেল লিখবেন। এতে করে যেটা হবে, আমরা যখন গুগল এ কিছু লিখে সার্চ করি তখন দেখবেন ইমেজ নামে একটা অপশন আছে, সেখানে অনেক ছবি আসে সেই ছবি নিচে দেখতে পারবেন ছবিটির নাম এবং একটা উআরএল আসে, এখন আপনি যদি আপনার পোষ্টের ছবিতে কিছু কিওয়ার্ড আর উআরএল দিয়ে দেন তাহলে ক্লিক করার সাথে সাথে কিন্তু ভিজিটর আপনার সাইতে চলে আসবে। তাই আপনার পোষ্টে যে ছবিটা দিবেন টা আপনার হতে হবে। অন্যের টা কপি করে দিয়ে পারেন কিন্তু যার টা কপি করবেন সারাজীবন তার পোষ্ট এবং ছবি আপনার পোষ্টের আগে আসবে। আর তার পোষ্ট যদি আগে দেখে তাহলে আপনার পোষ্ট কেনো দেখবে। আপনি যতই ভালো লেখেন না কেনো কোন লাভ হবে না আর যদি কপিরাইট স্টাইক দেয় তাহলে আপনার সেই ব্লগ সাইট ৯০% শেষ আমি মনে করি।
  • এখন পোষ্ট লেখার পরে কিছু কিওয়ার্ড লেখার জন্য একটা অপশন থাকে যার নাম Search Description. সেখানে আপনার পোষ্টের মেইন মেইন কিওয়ার্ড (keyword) গুলো দিবেন। আপনি কোন বিষয় নিয়ে লিখলেন গুগল তা দেখবেন না, গুগল দেখবে আপনি Search Description এ কি কি কিওয়ার্ড দিয়েছেন। কেনোনা এই কিওয়ার্ড (keyword) গুলোর মাধ্যমেই গুগল আপনার পোষ্ট অন্যের কাছে পাঠাবে। ্তাই এই কিওয়ার্ড দেওয়ার আগে বুঝে শুনে দিবেন। মনে রাখবেন এই কিওয়ার্ড গুলোই কিন্তু আপনার পোষ্ট রেঙ্ক এ আনবে। আর এই Search Description এ আপনি ১৫০ ওয়ার্ড এর বেশি লিখতে পারবেন না। সব গুলো ইংলিশ কিওয়ার্ড (english keyword) এ দেওয়ার চেষ্টা করবেন।
এখন আমি যেভাবে বললাম আপনি যদি এই ভাবে সঠিক কিওয়ার্ড দিতে পারেন তাহলে আপনার পোষ্ট রেঙ্কে আসবে ৯৯% বাকি ১% গুগল শেয়ার করবেন। এই পৃথিবীতে যত ওয়েব সাইটের পোষ্ট আছে তারা এই ভাবেই এসইও করে। আশা করি আপনারা সব কিছু বুঝতে পেরেছেন। এর পরেও যদি কোন সমস্যা থাকে বা কোন কিছু মিস করে থাকি তাহলে কমেন্টে যানাবেন।

[ কিভাবে ব্লগ পোষ্ট করতে হয় জানতে এখানে ক্লিক করুন ]
[ এসইও সম্পূর্ক জানতে এখানে ক্লিক করুন ]

সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।
ধন্যবাদ।

Post a Comment

0 Comments